শিরোনাম:
ঢাকা, বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৩ আশ্বিন ১৪২৯

Daily Pokkhokal
রবিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
প্রথম পাতা » অর্থনীতি | ই-পেপার | ব্রেকিং নিউজ | রাজনীতি » দুই মেগা প্রকল্প উদ্বোধনে রবিবার চট্টগ্রামে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
প্রথম পাতা » অর্থনীতি | ই-পেপার | ব্রেকিং নিউজ | রাজনীতি » দুই মেগা প্রকল্প উদ্বোধনে রবিবার চট্টগ্রামে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
৫২০ বার পঠিত
রবিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৯
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

দুই মেগা প্রকল্প উদ্বোধনে রবিবার চট্টগ্রামে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : চট্টগ্রামে উদ্বোধনের অপেক্ষায় স্বপ্নের দুই মেগা প্রকল্পের নির্মাণ কাজ। প্রকল্পটি দুটি হলো-দেশের প্রথম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেল (কর্ণফুলী টানেল) এবং এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে।

রবিবার সকালে আনুষ্ঠানিকভাবে দুই মেগা প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনের পর পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত এলাকায় কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ কর্তৃপক্ষের আয়োজনে বিশাল সুধী সমাবেশে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

শনিবার সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানান, প্রধানমন্ত্রী রবিবার বেলা ১১টায় টানেলের খনন (বোরিং) কাজের শুভ উদ্বোধন করবেন।

প্রায় ৯ হাজার ৮৮০ কোটি টাকা ব্যয়ে টানেলটির নির্মাণ কাজ বাস্তবায়ন করছে সেতু বিভাগ। যার মধ্যে বাংলাদেশ সরকারের অর্থ সহায়তা তিন হাজার ৯৬৭ কোটি ২১ লাখ এবং চীন সরকারের অর্থ সহায়তা পাঁচ হাজার ৯১৩ কোটি ১৯ লাখ টাকা।

দুটি টিউব বিশিষ্ট মূল টানেলের দৈর্ঘ্য ৩.৪ কিলোমিটার। পশ্চিম ও পূর্ব প্রান্তে ৫.৩৫ কিলোমিটার সংযোগ সড়ক এবং ৭২৭ মিটার ওভার ব্রিজসহ এ টানেল চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলাকে শহরাঞ্চলের সাথে যুক্ত করবে।টানেলটি নেভাল একাডেমি পয়েন্ট থেকে শুরু হয়ে নদীর অপর পাড়ে কাফকো ও সিইউএফএল পয়েন্টের মাঝখান দিয়ে বের হবে।

প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে চট্টগ্রাম শহরকে বাইপাস করে ঢাকা থেকে সরাসরি কক্সবাজারের সাথে সহজ যোগাযোগ স্থাপিত হবে। ফলে চট্টগ্রাম শহরের যানজট কমাসহ ভ্রমণ সময় উল্লেখযোগ্য হ্রাস পাবে।

‘আগামী ২০২২ সালের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ হবে বলে আশা করা যাচ্ছে’, যোগ করেন আবু নাছের।

জানা যায়, প্রকল্পের কাজ শেষ হলে টানেল নির্মাণের কারণে অনেক বেশি বিদেশী পর্যটক দেশে আসবেন এবং এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণে যানজটমুক্ত হবে চট্টগ্রাম নগরী। তাছাড়া মিরসরাই ইকোনোমিক জোন ও আনোয়ারা শিল্প এলাকা তথা কেইপিজেডে বিনোযোগ বৃদ্ধি ও বিমানবন্দরসহ বিভিন্ন স্থানে যাতায়াত সুবিধা বৃদ্ধি পাবে পাবেন বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

বন্দর নগরীর লালখান বাজার থেকে শাহ্ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর পর্যন্ত ৩ হাজার ২৫০ কোটি ৮৩ লাখ টাকা ব্যয়ের এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্পটিরও উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। ২০১৭ সালের ১১ জুলাই জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় প্রকল্পটি পাস হয়। চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (চউক) নগরের বৃহত্তম এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে।



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)