শিরোনাম:
ঢাকা, শনিবার, ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯

Daily Pokkhokal
রবিবার, ২ অক্টোবর ২০১৬
প্রথম পাতা » অর্থনীতি | জেলার খবর | পোশাক শিল্প » বেনাপোল স্থল বন্দরে ভয়াবহ অগ্নি-কান্ড
প্রথম পাতা » অর্থনীতি | জেলার খবর | পোশাক শিল্প » বেনাপোল স্থল বন্দরে ভয়াবহ অগ্নি-কান্ড
২৭১ বার পঠিত
রবিবার, ২ অক্টোবর ২০১৬
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

বেনাপোল স্থল বন্দরে ভয়াবহ অগ্নি-কান্ড

---

আমিনুর রহমান তুহিন। ,বেনাপোল: রবিবার ভোরে বেনাপোল স্থল বন্দরের পণ্য গুদামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটেছে। আগুন ছড়িয়ে পড়েছে পাশের পোর্ট থানা ভবনসহ রাস্তা উপরে রাখা ট্রা‌কে।
রোববার ভোর ৫টার দিকে বেনাপোল স্থল বন্দরের ২৩ নম্বর পণ্য গুদাম থেকে এ ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়।  যশোর ও বেনাপোল বন্দর ফায়ার সার্ভিসের ৮টি  ইউনিটের প্রচেষ্টায় দীর্ঘ ৩ ঘন্টা পর আগুন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্র‌ণে আসে।পর ভারতের পেট্রাপোল থেকে  ফায়ার সার্ভিসের একটি  ইউনিট ঘটনা স্থলে আসে ।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,  রবিবার  ভোর ৫ টার দিকে বেনাপোল স্থল বন্দ‌রের ২৩ নং শে‌ডে ধোঁয়া উঠতে দেখেন । এর  কিছুক্ষণের মধ্যেই দাউদাউ করে আগুন জ্বলে ওঠে। এক সময় সে আগুন বন্দরের ২৩ নং শেডসহ পোর্টথানা ও পোর্টথানার সামনে রাস্তার উপর রাখা ট্রা‌ক, প্রাই‌ভেটকা‌রের উপর ছ‌ড়ি‌য়ে প‌ড়ে।
বেনা‌পোল সিএন্ডএফ এসো‌শিয়শ‌নের সভাপ‌তি ম‌ফিজুর রহমান স্বজন জানান, বন্দরের কর্তপ‌ক্ষের অব্যবস্থাপনার কার‌ণে এ দূরঘটনা। তা‌দের অব্যবস্থাপনা ও খাম-‌খেয়া‌লিপনার কার‌ণে প্রায়ই এ বন্দ‌রে অগ্নিকা‌ন্ডের ঘটনা ঘ‌টে থা‌কে। এর আগেও ৭৮ বার আগুন লাগার ঘটনা ঘ‌টে‌ছে এ বন্দ‌রে।

বেনাপোল স্থলবন্দরের পরিচালক নিতাই চন্দ্র সেন  জানান, আগুন লাগার পরপরই বন্দর ফায়ার সার্ভিসের ২ টি ইউনিট কাজ শুরু করে। এরপর যশোর থেকে আরও ৬টি ইউনিট এসে সর্বাত্নক প্র‌চেষ্টায় আগুন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্র‌ণে আনে।
স্থানীয় বাসীন্দরা অভিযোগ করেন, বন্দর ফায়ার সার্ভিসের লোকবল ও সরঞ্জাম সংকটের কারণে আগুন তৎক্ষণাৎ নেভানো যায়নি, যে কারণে পণ্য গুদাম ছাড়িয়ে আগুন ছ‌ড়ি‌য়ে প‌ড়ে পোর্ট থানাভবন এবং রাস্তায় ।



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)