শিরোনাম:
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ৩ ভাদ্র ১৪২৯

Daily Pokkhokal
সোমবার, ৬ জানুয়ারী ২০২০
প্রথম পাতা » খেলাধুলা | ব্রেকিং নিউজ » আমলাকে ও ভয় পাই না মেহেদী হাসান রানা
প্রথম পাতা » খেলাধুলা | ব্রেকিং নিউজ » আমলাকে ও ভয় পাই না মেহেদী হাসান রানা
১৫৫ বার পঠিত
সোমবার, ৬ জানুয়ারী ২০২০
Decrease Font Size Increase Font Size Email this Article Print Friendly Version

আমলাকে ও ভয় পাই না মেহেদী হাসান রানা

---

পক্ষকাল সংবাদ-

এবারের বঙ্গবন্ধু বিপিএলে নজর কেড়েছেন তরুণ পেসার মেহেদী হাসান রানা। প্রথমদিকে দল না পাওয়া রানাকে দলে ভেড়ানোর সুফল পাচ্ছে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। ইতোমধ্যে এবার ৮ ম্যাচে ১৭ উইকেট শিকার করে শীর্ষস্থানে রয়েছেন তিনি।

এরই মধ্যে গতকালকের ম্যাচে ৪ জানুয়ারি, শনিবার খুলনা টাইগার্সের ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরাও হয়েছেন রানা। এরমধ্যে নিজের প্রথম ওভারেই দুর্দান্ত দুই ডেলিভারিতে নিয়েছেন মেহেদী হাসান মিরাজ ও হাশিম আমলার উইকেট।

দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে দীর্ঘদিন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দাপট দেখানো হাশিম আমলার মতো ব্যাটসম্যানকে বোল্ড করা যে কোন তরুণ বোলারের কামনা। তবে ব্যাটসম্যানের নাম নিয়ে তেমন ভাবেননা বলেই ম্যাচ শেষে জানালেন মেহেদি হাসান রানা।

তার ভাষ্য, ‘কোনো ব্যাটসম্যান যখন উইকেটে নামে, আমি তখন চিন্তা করি না যে আমলা নাকি কে ওটা। এসব ভাবিই না।’ রানার ভাবনায় তখন শুধুই নিজের বোলিং। এভাবে বোলিং করেই সফল হয়ে চলেছেন বলেও জানান তিনি।

ইতোমধ্যে এবারের বিপিএলে উইকেট শিকার নিয়ে ‘কাটার মাস্টার’ মুস্তাফিজুর রহমানের সঙ্গে রানার অঘোষিত প্রতিযোগিতা চলছে। কোন ম্যাচ শেষে মুস্তাফিজ চলে যান শীর্ষে, আবার কোন ম্যাচ শেষে দেখা যায় রানাই উঠে গেছেন শীর্ষে। অবশ্য উইকেটের হিসাব রাখেন না বলেই দাবি করলেন এই তরুণ পেসার।

এ বিষয়ে রানা বলেন, ‘উইকেট আমি গুনছি না। একেকটা ম্যাচ ধরে এগোচ্ছি। প্রতিটি ম্যাচে ভালো করব কিভাবে, সেটি ভাবছি। (মুস্তাফিজ টপকে গেলেন কিনা) সেটা মাথায় আনিনি। ম্যাচ থেকে ম্যাচে উন্নতি করছি। ভালো করছি। সামনেও ভালো করার আশা করছি।’

ঢাকা-চট্টগ্রাম-ঢাকা এবং সিলেট পর্ব মিলে বিপিএলে এখনো পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে মোট ৩৪টি ম্যাচ। যেখানে উইকেট শিকারের তালিকায় শীর্ষে আছেন মেহেদি হাসান রানা।

সর্বোচ্চ উইকেট শিকারীর তালিকা (৩৪তম ম্যাচ পর্যন্ত)

১. মেহেদি হাসান রানা (চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স) – ১৭ উইকেট (সেরা-২৩/৪)

২. মুস্তাফিজুর রহমান (রংপুর রেঞ্জার্স) – ১৬ উইকেট (সেরা-১০/৩)

৩. মুজিব-উর-রহমান (কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স) – ১৩ উইকেট (সেরা-১২/৪)

৪. লুইস গ্রেগরি ( রংপুর রেঞ্জার্স) – ১৩ উইকেট (সেরা-২৫/২)

৫. রুবেল হোসেন (চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স) – ১৩ উইকেট  (সেরা-১৭/৩)



পাঠকের মন্তব্য

(মতামতের জন্যে সম্পাদক দায়ী নয়।)